ঝিনাইদহে সড়ক দূর্ঘটনা রোধে অনির্বাণ তালসার ও ঘাগা প্রভাতী সংঘের উদ্যোগ

রাকিব হোসেন, কোটচাঁদপুর প্রতিনিধি

সড়কটির দুই পাশে জঙ্গল আর জঙ্গল। মোড়গুলোতে বিপরীত দিকের কিছু দেখার উপায় নেই। তাই মোড়গুলোতে মাঝেমধ্যেই ঘটছে দুই পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষ। এতে জীবনহানি থেকে শুরু করে পঙ্গুত্ব বরণ করছেন অনেকে। প্রতি মাসে সড়কটিতে দু–তিনটি দুর্ঘটনা ঘটে। বিষয়টি ভাবিয়ে তোলে পারভেজ ও আকিমুল কে। উদ্যোগ নেন সমাধানের।

ঝিনাইদহের পাগলাকানাই থেকে জিয়ানগর হয়ে কোটচাঁদপুর মেইন বাসস্ট্যান্ডে মিশেছে একটি সড়ক। এই সড়কের কোটচাঁদপুর অংশের তালসারের ঘাগাা থেকে সদর উপজেলার হাজিডাঙ্গা পর্যন্ত দুই পাশে প্রচুর জঙ্গল তৈরি হয়।

স্থানীয়রা জানান, সড়কটির মোড়গুলোতে জঙ্গল থাকায় সামনের কিছু দেখা যেত না। প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছিল। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ঘটেছে দুটি দুর্ঘটনা। ১৯ জুলাই ওই সড়কের ঘাঘা গ্রামের এক মোড়ে নছিমনের সঙ্গে লাটাগাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় গাড়ির চালক গুরুতর আহত হয়ে এখনো চিকিৎসাধীন। গতকাল ২৩ জুলাই এই সড়কের কুশনা এলাকায় নছিমনের সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া প্রতি মাসেই দুই থেকে তিনটি দুর্ঘটনা ঘটে।

কীভাবে এর সমাধান হবে, তিনি সেই পরিকল্পনা করেন। এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ও এলাকার সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের কাছে সড়কের জঙ্গল পরিষ্কারে কর্মী দাবি করেন। এরপর আলোচনা করে আজ শুক্রবার তাঁরা সড়কটির দুই ধারে থাকা জঙ্গল পরিষ্কার করেছেন।

আকিমুল ইসলাম ও পারভেজ হাসান উদ্যোগে অনির্বাণ সেচ্ছাসেবী সংগঠন, ঘাঘা প্রভাতী সংঘ, তালসার একতা সেবা সংঘ ও স্বপ্নছোঁয়া সামাজিক সংগঠন নামে চারটি সংগঠন একত্র হয়।

ঘাঘা প্রভাতী সংঘের সভাপতি পারভেজ হাসান জানান, ৩০ সদস্য আজ সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঘাঘা থেকে হাজিডাঙ্গা মোড় পর্যন্ত দুই কিলোমিটারের বেশি সড়কের দুই ধারের জঙ্গল কেটে পরিষ্কার করেন। অনেক স্থানে বাঁশঝাড়ও তাঁদের কাটতে হয়েছে, যা ছিল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ ও পরিশ্রমের।

এই কাজ করতে গিয়ে ঘাগা প্রভাতী সংঘের সভাপতি পারভেজ হাসান গুরুতর আহতও হয়েছেন। তারপরও জনসাধারণের কথা চিন্তা করে তাঁরা কাজটি শেষ করেছেন।

Facebook Comments
আরো পড়ুন