নেত্রকোনায় ধর্ষণ
মোটরসাইকেলে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ

নেত্রকোনা প্রতিনিধিঃ রানা সরকার

পাওনা টাকা আনতে গ্রামের মেঠো পথ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন এক বিধবা নারী (৩৪)। এ সময় ওই নারীর পূর্ব পরিচিত এক যুবক ওই পথ দিয়ে মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন। পরে তিনি ওই নারীকে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নেন। পরে একটি  লাউ খেতের পাশে নির্জন স্থানে মোটরসাইকেল থামিয়ে যুবকটি ওই নারীকে ধর্ষণ করেন।

নেত্রকোনার কলমাকান্দার একটি গ্রামে সোমবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটে। পরে ওই নারী সন্ধ্যায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে।

গ্রেপ্তার যুবকের নাম জাকির হোসেন। তিনি একই উপজেলার বাসিন্দা। তিনি কখনো ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালান, আবার কখনো শ্রমিকের কাজ করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকেলে ওই নারী পাশের গ্রামের এক ব্যক্তির কাছে পাওনা টাকা আদায় করতে তাঁর নিজের বাড়ি থেকে ওই গ্রামে হেঁটে যাচ্ছিলেন। পথে জাকির হোসেনের সঙ্গে দেখা হয় তাঁর। জাকির ও তিনি পূর্ব পরিচিত। কুশল বিনিময় শেষে জাকির তাঁকে গন্তব্যস্থলে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে মোটরসাইকেলে তোলেন। পরে লাউ খেতের পাশে নির্জন স্থানে মোটরসাইকেল থামিয়ে জাকির তাঁকে ধর্ষণ করেন। ওই নারীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাঁকে উদ্ধার করেন। এ সময় জাকির দৌড়ে পালিয়ে যান।

পরে সন্ধ্যায় ওই নারী বাদী হয়ে থানায় জাকিরকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই জাকিরকে গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে কলমাকান্দার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাজহারুল করিম মঙ্গলবার ১১টার দিকে দৈনিক জার্নাল বাংলাকে জানান, ধর্ষণের মামলায় আসামি জাকিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে। আর ওই নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন