সারাবিশ্বে দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে: জাতিসংঘ

চীনের উহান থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্বজুড়েই চলছে লকডাউন। কাজ ফেলে ঘরবন্দি জীবন যাপন করতে হচ্ছে সর্বোত্র। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে খাদ্য উৎপাদনে। এর ফলে তৈরি হবে খাদ্য সংকট, বিশ্বজুড়ে দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে- এমনটাই আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১৮ লাখ ৫৭ হাজার ৩৫৪ জন। ১ লাখ ১৪ হাজার ৩৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে করোনায় সৃষ্ট ভয়ঙ্কর মহামারী রুখতে বিশ্বজুড়ে যেভাবে লকডাউন জারি করা হয়েছে, এর জেরেই অনভিপ্রেত খাদ্য সংকট তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষিবিষয়ক সংস্থা এফএও।

সংস্থাটি জানায়, খাবারের অভাব এখন বোঝা না গেলেও লকডাউনের পর খাদ্যে প্রকট অভাব দেখা দিতে পারে।

একটি সমীক্ষা বলছে, বিশ্বব্যপী প্রায় ৮০ কোটি মানুষ ইতিমধ্যে খাদ্য সংকটে ভুগছেন।

করোনা আতঙ্কে বিশ্বের বহু দেশে সম্পূর্ণ লকডাউন চলছে। বন্ধ আন্তর্জাতিক সীমান্ত। আকাশপথ পুরোপুরি বন্ধ, ব্যবসা বাণিজ্যেরও একই হাল।

জাতিসংঘের আশঙ্কা, এর জেরে বিশ্বজুড়ে খাদ্য সরবরাহ বিঘ্নিত হতে পারে। ফলে যেসব দেশে প্রয়োজনীয় খাদ্য উৎপাদন হয় না, যাদের খাদ্যের জন্য অন্য দেশের ওপর নির্ভর করতে হয়, সেসব দেশ চরম সমস্যায় পড়তে পারে। দেখা দিতে পারে দুর্ভিক্ষ।

জাতিসংঘের খাদ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত কমিটির আশঙ্কা, খাদ্যের এই সংকটে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবেন গরিব ও প্রান্তিক শ্রেণির মানুষ। এই উদ্ভূত সংকট থেকে রক্ষা পেতে দ্রুত বিশ্বজুড়ে খাদ্য পরিবহনের ব্যবস্থা করা উচিত বলে মনে করছে তারা।

জার্নাল বাংলা/সাইফুল

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!