নোয়াখালী প্রাইম হসপিটাল লকডাউন

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনায় আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার বিষয়টি গোপন করায় নোয়াখালীর প্রাইম হসপিটালকে লকডাউন ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের একজন বাসিন্দা (ইতালি প্রবাসী) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর আগে প্রাইম হসপিটালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। চিকিৎসা নেওয়ার বিষয়টি প্রাইম হসপিটাল কর্তৃপক্ষ গোপন করায় ও নিরাপত্তার স্বার্থে লকডাউন করা হয়েছে।

আজ (১৩ এপ্রিল) রাত ১২টার পর থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মোমিনুর রহমান।

তিনি বলেন, একজন ইতালি প্রবাসী গত ৫ এপ্রিল প্রাইম হসপিটালের ৫০৪ নম্বর কক্ষে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ৮ এপ্রিল তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল এবং ৯ এপ্রিল উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে মৃতের শরীরের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়। শনিবার পরীক্ষায় ওই প্রবাসীর করোনা পজেটিভ আসে।

তিনি আরও বলেন, প্রাইম হসপিটাল কর্তৃপক্ষ রোগীর নমুনা সংগ্রহ করার জন্য সিভিল সার্জন অফিসে না জানিয়ে তথ্য গোপন করেছে। এজন্য প্রাইম হসপিটালকে আগামী ১৪ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। একই সাথে প্রতিষ্ঠানটি সম্পূর্ণ খালি করে জীবাণুমুক্ত করার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়া সব চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ১৪দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

  • জার্নাল বাংলা/অর্ণব
Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!