পাঞ্জাবে আটকা পড়েছে সাড়ে তিনশ’ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কভিড-১৯ করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে ঘোষিত লকডাউনের কারণে ভারতের পাঞ্জাবের লাভলি প্রফেশনাল ইউনিভার্সিটিতে আটকা পড়েছেন সাড়ে তিনশ’ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ জন শিক্ষার্থী গণমাধ্যমের কাছে শুক্রবার তাদের ভিডিও বার্তা পাঠিয়ে দেশে ফেরার আকুতির কথা জানান।

লকডাউনের কারণে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই অর্থসংকটসহ খাবার সংকটে পড়েছেন। এতে তারা শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। দেশে ফেরার জন্য তারা ভারতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করেও তেমন কোন সাড়া পাচ্ছেন না। ভিডিও বার্তায় তারা জানান, এক মাস ধরে বন্দি জীবনে তারা মানসিকভাবে অনেকটাই ভেঙে পড়েছেন। সেই সাথে ভারতের করোনা পরিস্থিতি দিন দিন আরও খারাপ হচ্ছে। তাই তারা দেশে বাবা মায়ের কাছে ফিরতে চান। এজন্য সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন তারা।

বর্তমানে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে সাড়ে ৩’শ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫০ জনের মতো ক্যাম্পাসে রয়েছেন। বাকিরা ক্যাম্পাসের বাইরে বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করছেন। ক্যাম্পাসে অবস্থান করা শিক্ষার্থীদের কোন মতে খাবার মিললেও বাইরে থাকা শিক্ষার্থীরা খাদ্য সংকটসহ নানা সমস্যায় পড়েছেন। দেশ থেকে টাকা পাঠাতে পারছে না তাদের স্বজনরা। চওড়া দামে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস ও খাবার কিনতে হচ্ছে।
ভারতের রাজধানী দিল্লী থেকে বিশেষ একটি ফ্লাইটের ব্যবস্থা করার জন্য দাবি জানিয়েছেন তারা। প্রয়োজনে তারা যাতায়াত খরচও বহন করতে রাজি রয়েছেন। এমনকি তাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দিল্লি পর্যন্ত পৌঁছে দেয়ার আশ্বাসও পাওয়া গেছে বলে তারা জানান। ভিডিও বার্তার মাধ্যমে তাদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য তারা বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

সূত্র: ডিবিসি নিউজ

জার্নাল বাংলা/বাবলু ইসলাম অর্ণব

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!