রংপুরে পুলিশ সেজে চাঁদাবাজি, ৬ যুবক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের পরিচয়ে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগে ছয় যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের কুমারগাড়ি এলাকায় মোমিন মার্কেটে কয়েক ব্যবসায়ী দোকান খোলা রাখলে ওই ছয় যুবক তাঁদের ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা আদায় করেন বলে অভিযোগ ওঠে। পরে স্থানীয় লোকজন ওই যুবকদের গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেন।

গতকাল এ ঘটনা ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র। এ ঘটনায় গতকাল রাতে মামলা হয়েছে বলে তিনি জানান।

গ্রেপ্তার ছয় যুবক হলেন, ইয়াতামুল অলিন (২৫), জামান (২৭), আহসানুল হাবিব বিপু (২৮), মওদুদ আহমেদ (২৭), উজ্জল চন্দ্র সরকার (২৮) ও মেহেদী হাসান (২৮)।

পীরগঞ্জ পুলিশ জানিয়েছে, যুবকেরা নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে মোমিন মার্কেটে যান। তাঁরা বাজারের চার–পাঁচটি ওষুধ ও কীটনাশকের দোকানপাট কেন খোলা রাখা হয়েছে তা জানতে চেয়ে ব্যবসায়ীদের ওপর চড়াও হন। এক পর্যায়ে তারা চাঁদা দাবি করেন। ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে কিছু টাকাও হাতিয়ে নেন। এরপর যুবকেরা পথে মোটসাইকেল আরোহী ও যাত্রীদের থামিয়ে তাঁদের ওপরও চড়াও হন। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত একজন ওই ছয় যুবকের একজনকে চিনতে পারেন। এরপর ব্যবসায়ী এবং আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে ছয় জনকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।

পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র দৈনিক জার্নাল বাংলাকে বলেন, স্থানীয় জনগণের কাছ থেকে ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পুলিশ পাঠানো হয়। উত্তেজিত লোকজনকে শান্ত করে ওই ছয় যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

ওসি আরও বলেন, এ ঘটনায় ওই বাজারের মন্ডল ফার্মেসির মালিক রুহুল আমিন বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে দ্রুত বিচার আইনে রাতেই মামলা করেছেন। ছয়জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ শনিবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

 

জার্নাল বাংলা/অর্ণব

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!