নোয়াখালী জেলা কারাগার থেকে মুক্তির অপেক্ষায় ১০৭ বন্দি

জার্নাল বাংলা ডেস্ক

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মানবিক কারণে সারা দেশের কয়েক হাজার কয়েদিকে সাময়িক মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। এই আওতায় নোয়াখালী জেলা কারাগার থেকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজাপ্রাপ্তদের মুক্তির সুপারিশ করে অধিদপ্তরে তালিকা পাঠিয়েছে জেলা কারা কর্তৃপক্ষ। তালিকা অনুযায়ী মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছেন ১০৭ জন বন্দি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নোয়াখালীর জেল সুপার মনির আহমেদ বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ এড়াতে নোয়াখালী কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য বিভিন্ন মেয়াদে সাজাপ্রাপ্ত ১০৭ জন কয়েদির নাম ঢাকা কারা অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছে। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে এই তালিকা পাঠানো হয়েছে। ১০৭ জনের মধ্যে এক বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ৮৭ জন এবং ২০ বছরের ঊর্ধ্বে কারাগারে আছেন এমন ২০ জনের নাম রয়েছে।’

মনির আহমেদ আরো বলেন, ‘কারাগারে বন্দিদের রাখার জন্য ১১টি পুরুষ ও একটি নারী ওয়ার্ড রয়েছে। ধারণক্ষমতা ৩৮৮ জনের। এর মধ্যে পুরুষ বন্দি ধারণক্ষমতা ৩৬৮ জন। আর নারী বন্দি ধারণক্ষমতা ২০ জন। বর্তমানে রয়েছে ১ হাজার ৩৫ জন।’

ডেপুটি জেলার নোবেল দেব বলেন, ‘নোয়াখালী জেলা কারাগারে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে নতুন বন্দিদের কারাগারের ভেতরে ঢোকানোর আগে প্রধান গেটে সাবান ও হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে ভালোভাবে হাতমুখ ধোয়ানো হয়। শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হয়। এভাবে প্রাথমিকভাবে সুস্থ্যতার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর ভেতরে ঢোকানো হয় আসামিদের। কারাগারের রন্ধনশালা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার পাশাপাশি খাবার ভালোভাবে সিদ্ধ হওয়ার পর পরিবেশন করা হয়। এছাড়া, কারাগারের ভেতরে বন্দিদের মাঝে করোনা সম্পর্কে সচেতনতামূলক প্রচারণাও চালানো হচ্ছে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!