আশুলিয়ায় পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজি, লেগুনাসহ আটক তিন

সাভারের আশুলিয়ায় পুলিশ পরিচয়ে ভয়-ভিতি দেখিয়ে বিভিন্ন দোকানে দোকানে চাঁদাবাজি করার সময় তিন চাঁদাবাজকে আটক করেছে স্থানীয়রা। পরে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

তবে এঘটনায় আরও দুই চাঁদাবাজ কৌশলে পালিয়ে গেলেও তাদের ব্যবহৃত একটি লেগুনা গাড়ি (সিরাজগঞ্জ-ছ-১১-০১৮৫) আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে আশুলিয়ার কুটুরিয়া এলাকা থেকে ওই চাঁদাবাজদের আটক করে এলাকাবাসী। পরে তাদেরকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

আটককৃতরা হলো- পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি থানার দক্ষিন সোনাগঞ্জ গ্রামের এনামুল হকের ছেলে বাবু হোসেন (৩৪), রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার কাউলাদবাড়ি গ্রামের মৃত আব্দুল আলীমের ছেলে রবিউল ইসলাম (২০) ও কুষ্টিয়া জেলার সদর থানার হাটুলিয়া গ্রামের কাউসার আলীর ছেলে আরিফ (৩৫)।

ভুক্তভোগী চায়ের দোকানদার সাগর জানান, রাত ৯ টার দিকে একটি লেগুনা গাড়ি নিয়ে সিভিল পোশাকে পাঁচজন লোকজন নিজেদেরকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দোকান খোলা কেন জানতে চায়। একপর্যায়ে তারা গালিগালাজ করে দুই হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। কিন্তু আমার কাছে তাদের গতিবিধি সন্দেহ হওয়ায় আমি পরিচয়পত্র দেখতে চাই। এঘটনায় তারা উত্তেজিত হয়ে আমাকে মারধর করার চেষ্টা করলে স্থানীয়দের সহযোগীতায় তিন চাঁদাবাজকে আটক করি।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ ফজর আলী জানান, আটককৃতদের উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে থানায় আনা হয়েছে। তবে তারা ভুয়া পুলিশ পরিচয় দিলেও মূলত সেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করে বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। তাদের কাছ থেকে জব্দকৃত লেগুনা গাড়িতে আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) স্টীকার লাগানো রয়েছে। এঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান তিনি।

জার্নাল বাংলা/সাইফুল

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!