এই প্রথম ইমাম ও পুরোহিতদের পাশে দাড়ালেন ঝিনাইদহের এসপি

আশাদুজ্জামান সোহাগ (ঝিনাইদহ প্রতিনিধি)

আশাদুজ্জামান সোহাগ: ঝিনাইদহে মহামারী করোনা মোকাবেলায় জেলায় সর্বদা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন জেলা পুলিশ সুপার  মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম । সারা বিশ্বের ন্যায় ঝিনাইদহেও করোনা ভাইরাস রোধে পুলিশ সুপার সর্বদা নিরলসভাবে এ জেলার জনগনের সেবা করে যাচ্ছেন।

ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ বাহিনীর পক্ষ থেকে করোনা পরিস্থিতিতে সৃষ্ট দূর্বিপাকে বিপদগ্রস্ত  পৌর এলাকার ও আশপাশের বিভিন্ন গ্রামাঞ্চল থেকে আগত দেড়শতাধিক মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেমকে এবং  মন্দিরের পুরোহিত,সেবায়েত এর মাঝে উপহার হিসেবে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির সারা বিশ্বের মডেল প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলার হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ খ্রিষ্টান আজ এক কাতারে। কোন রকম প্রচার-প্রচারনা ছাড়া নীরবে-নিভৃতে বুধবার সকালে ওয়াজির আলী স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে উপস্থিত ইমাম, মুয়াজ্জিন, খাদেম ও পুরোহিত-সেবায়েতদের মাঝে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

ঝিনাইদহ পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল আবুল বাশার, সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান ও সদর ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সালাহউদ্দিনসহ পুলিশ কর্মকর্তারা এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেন।

পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম বলেন,দেশের এই সংকট মুহূর্তে হিন্দু,মুসলিম,বৌদ্ধ খ্রিষ্টান মানুষের মধ্যে কোন ভেদাভেদ বিবেচনা না করে,

সবাইকে মানুষের কল্যাণে এগিয়ে আসা উচিত। বিশেষ করে ইমাম-মুয়াজ্জিন ও পুরোহিত-সেবায়েতগন আমাদের সমাজ ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। সামাজিক শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায়, মানুষকে সচেতন করতে এবং ধর্মীয়ভাবে আমাদেরকে দক্ষ ও যোগ্য হতে সব সময় সহযোগিতা করেন। একজন মুসলমানের জন্ম থেকে মৃত্যু  পর্যন্ত একজন ইমামের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। তেমনি একজন সনাতন ধর্মের লোকদেরও জন্ম থেকে মৃত্যু  পর্যন্ত একজন পুরোহিতের ভূমিকাও  গুরুত্বপূর্ণ।

বর্তমানে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের কারনে তাদেরও দৈনন্দিন জীবনে কষ্ট করে চলতে হচ্ছে। যার কারণে, ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ বাহিনীর নেতৃত্বে

ইমাম-মুয়াজ্জিন ও পুরোহিত-সেবায়েতদের কাছে উপহার হিসেবে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ  ইতিপূর্বে ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ বাহিনীর নেতৃতে জেলা জুড়ে অসহায়,হতদরিদ্র,দুঃস্থ ও নিন্ম আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া রমজান মাসে অসহায় পরিবারের মধ্যে  ইফতার সামগ্রী বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে বলে পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম জানান। এসময় উপসানালয়ে আগত মুসল্লি ও ভক্তদের বিষয়ে সরকারী বিধি-নিষেধ মেনে চলার অনুরোধ করা হয়।

 

জার্নাল বাংলা/অর্ণব/আশাদুজ্জামান

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!