ভাড়া দিতে দেরি হওয়ায় ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিলেন বাড়িওয়ালা

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কাজ না থাকায় বাসাভাড়া দিতে দেরি হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে বাসার ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছেন এক বাড়িওয়ালা। গতকাল উপজেলার পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কুতুববাজার এলাকায় রফিকুল ইসলাম রফিকের বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত গৃহবধূ চিকিৎসাধীন। গৃহবধূর স্বামী থানায় অভিযোগ করেছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে। ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।’

জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়ী এলাকার খৈলসাজিন গ্রামের রিকশাচালক আব্বাছ মিয়া তার স্ত্রী জাহানারা বেগমসহ পরিবার নিয়ে রফিকের বাসায় ভাড়া থাকেন। মাসিক ভাড়া ৭০০ টাকা। আব্বাছ মিয়া ও তার স্ত্রী জাহানারা বেগম অভিযোগ করেন, কাজকাম না থাকায় গত মাসের ভাড়া দিতে পারেননি। বাজার থেকে বাকিতে কিছু সবজি ও দুই-তিন কেজি চাল বাসায় নিয়ে যাওয়ার পথে বাড়িওয়ালা রফিক মিয়া বাসাভাড়ার টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন।

আব্বাছ মিয়া তাকে বলেন, ‘আমার কাছে এখন টাকা নেই। দুই মাসের ভাড়া একসাথে দিয়ে দিব।’ এই নিয়ে কথাকাটাকাটির সময় আব্বাছ মিয়ার স্ত্রী এগিয়ে এলে রফিক মিয়া তাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করেন। লাঠির আঘাতে জাহানারা বেগমের একটি হাত ভেঙে যায়।

বাড়িওয়ালা রফিক বলেন, ‘ভাড়া নিয়ে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে জাহানারা বেগম আমার ওপর হামলা করেন। উভয়ের মধ্যে ঝগড়ার জের ধরে হয়তো জাহানারা বেগম ব্যথা পেয়েছেন। তাদের হামলায় আমিও আহত হয়েছি।’ মির্জাপুর থানার সহকারী উপপরিদর্শক মো. মুজিবুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

জার্নাল বাংলা/সাবা

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!