করোনায় পর্যটনে ধস, হজ আয়োজনের চেষ্টা সৌদির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

করোনাভাইরাসে অন্যান্য অনেক খাতের মতো ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে সৌদি আরবের পর্যটনে। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের পর্যটন খাতে ৩৫-৪০ শতাংশ আয় কম হতে পারে। গতকাল শুক্রবার সৌদি আরবের পর্যটন মন্ত্রণালয় এ ধরনের আশঙ্কা প্রকাশ করেছে।

সৌদি আরবের পর্যটনমন্ত্রী আহমেদ আল-খাতিব বলেছেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর করোনাভাইরাসের জেরে ৩৫-৪০ শতাংশ আয় কম হতে পারে পর্যটন খাতে। আমরা চেষ্টা করছি যতো দ্রুত সম্ভব করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসে পর্যটক ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে।

তিনি আরো বলেন, সারাবিশ্ব বর্তমানে অন্যান্য খাতের মতো পর্যটনে ক্ষতির ধকল সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে। আমরাও সেই কবলে পড়েছি। আমাদের প্রত্যাশা- কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আমরা করোনাভাইরাসের কবল থেকে মুক্ত হতে পারবো। দ্রুত ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের দিক থেকে আমরা এগিয়ে থাকবো বলেও আশা রাখি।

সীমান্ত খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করাটাই এখন সৌদি প্রশাসনের প্রধান অ্যাজেন্ডা। আর সেটা সম্ভব হবে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শেষ হওয়ার পর।

বাইরের দেশগুলো থেকে অন্তত ২৫ লাখ হজযাত্রী এ বছর সৌদি আরবে যাওয়ার প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের জেরে হজ পালন অনিশ্চিত হয়ে গেছে। সৌদি প্রশাসন বলছে, হজের যেহেতু এখনো দেরি আছে। এ ব্যাপারে পরিকল্পনা চূড়ান্ত করার ব্যাপারে আরো কিছুটা বিলম্ব করা দরকার।

শিগগিরই এ ব্যাপারে মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করবে সৌদি আরবের হজ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। তারপর হজের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

পর্যটন মন্ত্রীর দাবি, নিরাপত্তা এবং সুরক্ষার বিষয়টি সৌদি আরবের কাছে সবার আগে। আর হজ পালনের মতো মহান আয়োজনে বিভিন্ন দেশ থেকে লাখ লাখ মানুষ আসে। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার জেরে বর্তমান প্রেক্ষাপটে সে ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার মতো পরিস্থিতিতে নেই সৌদি প্রশাসন। কারণ, সে ক্ষেত্রে বড় ধরনের ঝুঁকি আছে।

কারণ, এরই মধ্যে সৌদি আরবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার একশ দুইজন এবং প্রাণহানি ঘটেছে অন্তত ১২৭ জনের।

সূত্র : এপি

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!