ত্রাণের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ত্রাণের দাবিতে লকডাউন ভেঙে গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন খেটে খাওয়া মানুষেরা।

শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সদর উপজেলার বল্লমঝাড় ইউনিয়নের নতুন জেলখানার সামনে এই কর্মসূচি পালন করেন বল্লমঝাড়ের সাত নম্বর ওয়ার্ডের তিন শতাধিক শিশু, নারী ও পুরুষ।
এ সময় সড়কের দুই পাশে জরুরি পরিবহন কাজের ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহন আটকে পড়ে ভোগান্তির শিকার হয়।

খেটে খাওয়া মানুষগুলো জানান, গেল ২৬ মার্চ সাধারণ ছুটি শুরুর দিন থেকেই তারা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। কারও কাছে গেলে কেউ আর কাজ দেন না। কেউ যানবাহন নিয়ে রাস্তায় বের হলেই পুলিশ টায়ারের হাওয়া ছেড়ে দিয়ে মারধর করছে। ফলে এক মাস ধরে খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা। অনেকেই ঋণ করে সংসার চালাচ্ছেন। এ অবস্থায় ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যের সঙ্গে যোগাযোগ করেও আজ পর্যন্ত কিছুই পাননি বলে অভিযোগ করেন তারা।
পরে সদর থানা পুলিশের একটি টিম সেখানে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করে।
পুলিশের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে তাদের ঘরে ঘরে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষোভকারীরা।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রসুন কুমার চক্রবর্তী বলেন, কেউ যাতে খাবার ছাড়া কষ্ট না পায় এজন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ত্রাণ সরবরাহ করা হচ্ছে। একটা ঘরও খাবার ছাড়া থাকবে না। করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে লকডাউন চলছে। এ সময় কারো ঘরে খাবার না থাকলে উপজেলা প্রশাসন আছে, জেলা প্রশাসন আছে। আমাদেরকে জানালে হবে।

ইউএনও আরও বলেন, তারা আমাদের সঙ্গে আগে যোগাযোগ করেনি। এরপরও তাদেরকে একটি তালিকা করে জমা দিতে বলা হয়েছে। তারা যত দ্রুত তালিকা জমা দেবেন- যাচাই-বাছাই করে তত দ্রুত তাদেরকে ত্রাণ দেয়া হবে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!