ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে বিপদে কঙ্গনা

বিনোদন ডেস্ক

আইনি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়লেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। বোন রঙ্গোলী চণ্ডালের পাশে দাঁড়াতে গিয়ে যে ভিডিও পোস্ট করেন, তা থেকেই সমস্যা হয়েছে। মুসলিমদের ‘টেররিস্ট’ বলার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। মুম্বাইয়ের আইনজীবী আলি কাসিফ খান দেশমুখ সম্প্রতি নায়িকার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে বলেছেন, এক বোন জেনোসাইড কিলিং, হিংসার কথা বলে এবং অন্য বোন শুধু তাকে সাপোর্টই করে না, বরং একদলের মানুষের গায়ে ‘টেররিস্ট’ তকমা সেঁটে দেয়।

কিছু দিন আগে অশালীন ও প্ররোচনামূলক মন্তব্য করার প্রেক্ষিতে টুইটার কর্তৃপক্ষ রঙ্গোলী চণ্ডালের অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করেছিল। তারই প্রেক্ষিতে কঙ্গনা পোস্ট দিয়েছিলেন।

রঙ্গোলীর হয়ে কথা বলতে গিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন কঙ্গনা। তাতে তিনি স্পষ্ট বলেছেন, ‘যারা ডাক্তার এবং পুলিশের প্রতিনিধিদের গায়ে হাত তোলে, তাদের গুলি করে খুন করা উচিত। সুজান খানের বোন ফারহা খান আলি ও রিমা কাগতি ভুল অভিযোগ তুলেছেন। কখনও এটা বলিনি যে, ডাক্তার-পুলিশকে যারা পেটাচ্ছে, তারা মুসলমান। মুসলমান জেনোসাইডের কথাও কেউ বলিনি। যদি কেউ আমাদের করা কোনও টুইটে এমন বক্তব্য দেখাতে পারেন, তা হলে দু’জনেই প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে নেব।

তিনি আরও বলেন, যারা ডাক্তার-পুলিশের গায়ে হাত তোলে, তারা বিশেষ কোনও সম্প্রদায় বা গোষ্ঠীর অন্তর্গত হয় না।

আইনজীবী আরও বলেন, আমি কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছি তার মন্তব্যের জন্য, যেটা তিনি তাঁর বোন রঙ্গোলীকে সমর্থন করে পোস্ট করেছিলেন। ভিডিওতে কঙ্গনা বলেছেন জঙ্গিকে জঙ্গি বলতে পারব না?

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!