মাটির বাড়িতে মুক্তিযোদ্ধা হামিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বগুড়ার কাহালুতে জরাজীর্ণ বাড়িতে বসবাস করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা হামিদ। মাটির দেয়াল ফাটল ধরে ঘর ভেঙ্গে পড়ছে। পুরো বাড়িটি এখন জরাজীর্ণ অবস্থা।

জানা গেছে, ১৯৫২ সালের ১২ জুন কাহালু পৌর এলাকায় উলট্ট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ। তিনি কাহালু পৌর এলাকার উলট্ট গ্রামে পরিবার নিয়ে জরাজীর্ণ মাটির ভাঙা বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। তার চার পুত্র ও দুই মেয়ে রয়েছে। কোনোরকমে মেয়ে দুটোর বিয়ে দিয়েছেন।

বড় ছেলে আরিফুল বেকার, দ্বিতীয় ছেলে আশিকুল মাস্টার্স পাশ করে কাহালু মুক্তিযোদ্ধা টেকনিক্যাল এন্ড স্কুলে বেতন ছাড়াই চাকরি করেন, তৃতীয় ছেলে আসাদুজ্জামান দিনমজুরের কাজ করে এবং ছোট ছেলে আয়ুব আলী অনার্সে পড়ছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ বঙ্গন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণে উজ্জিবিত হয়ে ঘরে বসে না থেকে বাঙ্গালী জাতীর মুক্তির সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েন। ১৯৭১ সালের এপ্রিল মাসে ভারতের বোয়ালদা ক্যাম্পে প্রশিক্ষণ নিতে যান। তৃতীয় ব্যাচে তিনি টেনিং নিয়ে দেশকে শত্রæমুক্ত করতে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

সেই বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ ক্যান্সারে আক্রান্ত। তিনি ১২ হাজার টাকা ভাতা পেলেও চিকিৎসার খরচ চালাতে গিয়ে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন।

কিছুদিন আগে ভারতে গিয়ে চিকিৎসা করালেও ক্যান্সার নিরাময়ের জন্য ব্যবহৃত ওষুধ কিনতে পারছেন না তিনি। তাই মৃত্যুর সাথে লড়াই করে কোনোমতে বেঁচে আছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ জানান, কোলকাতায় তিনি চিকিৎসা করতে গিয়েছিলেন। সেখানে ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়েছ। ডাক্তার বলেছে প্রতি মাসে তাকে একটি কেমো দিতে হবে। সেই ক্যামুর দাম প্রায় ৬০ হাজার টাকা। টাকার অভাবে তিনি ক্যামু দিতে পারছে না। এখন চিকিৎসা ও বাড়ি দুটোই জরুরি প্রয়োজন বলেও জানান তিনি।

কাহালু মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নজিবর রহমান জানান, আব্দুল হামিদ একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ন্যাপ ছাত্র ইনিয়ন ও সিপিবি যৌথ গেরিলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে ৭নং সেক্টরে নুরুল আনোয়ার বাদশা নেতৃত্বে পাঁচবিবি, জয়পুরহাট এলাকায় পাকিস্তানী বাহিনীর সাথে যুদ্ধ করেছেন।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাছুদুর রহমান বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ বাড়ির বিষয়ে একটি আবেদন দিয়েছেন। সেই আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। আর চিকিৎসার জন্য সমাজ সেবা অফিসের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!