স্বর্ণালঙ্কার না পেয়ে বাড়ির মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল ডাকাত

মোর্শেদুল আলম, ফেনী, প্রতিনিধি

সোনাগাজীতে এক চা দোকানীর ঘরে ডাকাতি করতে গিয়ে টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার না পেয়ে মাদরাসা পড়ুয়া মেয়েকে (১৬) ধর্ষণ করেছে বলে স্বীকার করেছে ঘটনায় জড়িত একই এলাকার জোবায়ের ইসলাম সোহাগ। মঙ্গলবার দুপুরে ফেনীর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাত ৩টার দিকে ফাজিলের ঘাট সংলগ্ন উত্তর চরমজলিশপুর এলাকা থেকে জোবায়ের ইসলাম সোহাগকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মঙ্গলবারর দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফ উদ্দিন আহমদের আদালতে হাজির করা হলে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করে সে। জবানবন্দিতে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে অপরাপর জড়িতদের নাম প্রকাশ করে। গ্রেপ্তাকৃত সোহাগ একই এলাকার বাসু মেম্বারের বাড়ির সাইফুল ইসলাম প্রকাশ নজরুল ইসলাম প্রকাশ রুবেলের ছেলে।

আদালতে সোহাগ জানিয়েছে, ৬ জন সংঘবদ্ধ হয়ে ডাকাতির পরিকল্পনা করে। ডাকাতিকালে তারা ৫ হাজার টাকা পেয়েছে। পরে একটি কক্ষে নিয়ে মাদরাসা পড়ুয়া ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে সে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার চর মজলিশপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামে এক চা দেকানীর ভাড়া বাসায় হানা দেয় ৮-৯ জন মুখোশধারী ডাকাত। ডাকাতরা বাড়ির দরজার ছিটকিনি ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে কাপড় দিয়ে হাত-পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে পরিবারের সবাইকে জিম্মি করে ফেলে। এ সময় ঘরে সামান্য টাকা ছাড়া স্বর্ণালঙ্কার না পেয়ে ডাকাতদলের এক সদস্য ওই ব্যবসায়ীর মেয়েকে ঘরের অন্য একটি কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে ওই চা দোকানী বাদি হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

জার্নাল বাংলা/অর্ণব/আলম

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!