পিঠমোড়া বেঁধে, হ্যান্ডকাফ পরিয়ে আদালতে আনা হলো কাজলকে

নিজস্ব প্রতিনিধি

নিখোঁজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে আজ রবিবার বিকেলে যশোর আদালতে আনা হয়। এ সময় তার ছেলে মনোরম পলকসহ কয়েকজন স্বজন আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিলেন। তার জামিনের আবেদন করা হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আদালতের আদেশ হয়নি বলে জানিয়েছেন তার জামিন আবেদন করা আইনজীবী। তার বিরুদ্ধে ১৯৭৩ সালের পাসপোর্ট আদেশের ১১/৩ ধারায় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগ আনা হয়েছে।

কাজলকে বিকেল পৌনে ৩টার দিকে একটি থ্রিহুইলারে করে পুলিশ সদস্যরা আদালতে আনেন। এ সময় তার হাত পিঠমোড়া দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরানো ছিল। কাজলের মুখভর্তি ছিল সাদা দাড়ি। পরনে ছিল ফুল হাতা গেঞ্জি ও খাকি রঙের প্যান্ট। পায়ে ছিল দুই ফিতের চটি স্যান্ডেল। থ্রিহুইলার থেকে নামানোর পর কাজলকে তার ছেলে পলক জড়িয়ে ধরে। এ সময় তাকে বলতে শোনা যায় ‘আমি কোনো অন্যায় করিনি’।

কাজলের আইনজীবী দেবাশীষ দাসের সহকারী আইনজীবী সুদিপ্ত ঘোষ জানিয়েছেন, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে জামিনের আবেদন করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত আদালতের আদেশ হয়নি।

উল্লৈখ্য, নিখোঁজ ফটোসাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে আজ শনিবার গভীর রাতে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগ এনে বিজিবি বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!