লালমনিরহাটে দুই স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনায় আক্রান্ত ৯

রংপুর প্রতিনিধি

লালমনিরহাটে নতুন করে নয়জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে আদিতমারী উপজেলায় একই পরিবারের পাঁচজন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক নার্সসহ দুই স্বাস্থ্যকর্মী এবং নারায়নগঞ্জ ফেরত অপর এক যুবক। এছাড়া হাতীবান্ধা উপজেলায় প্রথম একজন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। সবমিলিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলায় মোট ১২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। যাদের মধ্যে দুজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল রাতে এসব তথ্য জানান লালমনিরহাটের সিভিল সার্জন ডা. নির্মলেন্দু রায়।

এ বিষয়ে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুর আরেফিন প্রধান কল্লোল জানান, উপজেলা পূর্ব দৈলজোড় গ্রামের ১৮ বছর বয়সী এক যুবক প্রথম করোনা শনাক্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। যিনি গাজীপুর থেকে এসেছিলেন। পরে ওই যুবকের পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে গত মঙ্গলবার পরীক্ষার জন্য রংপুরের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। সেখান থেকে পরিবারটির নতুন করে পাঁচ সদস্য করোনা রোগী হিসাবে শনাক্ত হয়েছেন। এদিকে ওই যুবকের সংস্পর্শে আসা আদিতমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন ষ্টাফ নার্স এবং যক্ষা ও কুষ্ঠ রোগ নিয়ন্ত্রণ সহকারীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। অপরদিকে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জফেরত ২৬ বছর বয়সী আরেকজন রোগীও শনাক্ত হয়েছেন।

এদিকে হাতীবান্ধা উপজেলায় প্রথম একজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. নির্মলেন্দু রায় জানান, এর আগে আদিতমারী ও পাটগ্রামে শনাক্ত দুই রোগী বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে নতুন আক্রান্তদের লালমনিরহাট নার্সিং ইনস্টিটিউটের আইসোলেশন সেন্টারে নিয়ে আসা হবে।

উল্লেখ্য, লালমনিরহাটে এখন পর্যন্ত মোট ১২ জন করোনা রোগীর মধ্যে লালমনিরহাট সদর উপজেলার আক্রান্ত বাবা-ছেলে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। জেলার পাঁচ উপজেলার মধ্যে কালীগঞ্জ ছাড়া সবগুলো উপজেলাতেই ছড়িয়ে পড়ল প্রাণঘাতী এ ভাইরাস।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!