সিগারেট খাওয়ায় কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদন

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে সিগারেট খাওয়া কেন্দ্র করে এক মাদ্রাসাছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে আরেক কিশোর।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দেউলভোগ গরুর হাটের ট্রান্সমিটার সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রবিউল (১৮) উপজেলার শহীদ মিনার এলাকার দিনমজুর মো. হাবীবের ছেলে ও হাঁসাড়া এলাকার একটি মাদ্রাসার ছাত্র।

আহত কিশোরের নাম আলী হোসেন (১৭)। তার বাবা হাবিবুর রহমান হাবিব স্থানীয় একটি শিশু একাডেমির কর্মচারী।

স্থানীয়রা জানান, গত বুধবার রবিউল ও আলী হোসেন তাদের চেয়ে বয়সে বড় সোহেল (২৮) নামে এক যুবকের সামনে সিগারেট খায়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

পর দিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মীমাংসার কথা বলে রবিউল ও আলীকে ডেকে আনেন সোহেল। এ সময় সোহেলের ভাই সুমন, শুভ ও নজরুল ইসলামের ছেলে রাকিবসহ কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

উভয়পক্ষে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে একজন ধারালো দা দিয়ে রবিউলের ঘাড়ে কোপ দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। আলী হোসেনের পিঠে, হাতে ও বুকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়।

এ সময় তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে রবিউলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘাতকদের মধ্যে সোহেল উপজেলা ভূমি অফিসের নাইটগার্ড বলে জানা গেছে।

শ্রীনগর থানার ওসি মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা দৈনিক জার্নাল বাংলাকে জানান, রবিউলের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। এ ব্যাপারে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!