৫২ বছর বয়সে মারা গেলেন জাতীয় কারাতে দলের কোচ

জাতীয় কারাতে চ্যাম্পিয়ন ও বাংলাদেশ কারাতে দলের সাবেক কোচ হুমায়ুন কবির জুয়েল আজ (মঙ্গলবার) ঢাকার সিটি হাসপাতালে মারা গেছেন। তাঁর মৃত্যুর কারণ হিসেবে শ্বাসকষ্টের কথা বলা হয়েছে। তবে তাঁর শরীরে করোনার উপসর্গ ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। তিনি বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সদস্যও ছিলেন। এছাড়াও আনসার কারাতে দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব পালন করছিলেন। আর তারাই এই ক্রীড়াব্যক্তিত্বের শরীর খারাপ হলে সোমবার হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এই ক্রীড়াব্যক্তিত্বের মৃত্যু নিয়ে বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ক্য শৈ হ্লা সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘শারীরিক অসুস্থতার জন্য গতকাল তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। উনার শ্বাসকষ্ট থাকায় করোনা টেস্টও করা হয়েছে। তবে সে ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। কিন্তু লাভ হয়নি। আজ সকাল ৮টার দিকে মারা গেছেন তিনি। মারা যাওয়ার পর এখন শুনছি করোনা নাকি পজিটিভ ছিল। তবে আমরা এখনো নিশ্চিত না।’

সত্যি কী করোনায় মারা গেছেন হুমায়ুন কবির জুয়েল। জানতে চাওয়া হয় এসএ গেমসে স্বর্ণপ্রাপ্ত কারাতে মুন খানের কাছে। তিনি জানিয়েছেন, ‘প্রচন্ড শ্বাসকস্ট নিয়েই তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। যদিও প্রথম পরীক্ষায় নেগেটিভ এসেছে। তবে এখন আবার পরীক্ষা করা হয়েছে। আমি হাসপাতালে খোঁজ নেওয়ার চেষ্টা করছি। দেখা যাক, ওরা কী বলে।’

জুয়েল বাংলাদেশের প্রথম ব্যক্তি যিনি এশিয়ান পর্যায়ে জাজের দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশের যত কারাতের জাজ আছেন তাদের মধ্যে জুয়েলই সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক খেলা পরিচালনা করেছিলেন।

তিনি এশিয়ান কারাতে ফেডারেশনের জাজ, দক্ষিণ এশিয়ান কারাতে রেফারি অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি এবং বাংলাদেশ কারাতে রেফারি এসোসিয়েশনের কো-চেয়ারম্যানও ছিলেন। এই ক্রীড়াব্যক্তিত্বের পরিবারে স্ত্রী ছাড়া একটা করে ছেলে-মেয়ে আছে। তবে এই মুহূর্তে তাঁরা সবাই যুক্তরাষ্ট্রে। বাংলাদেশে তিনি ভাইদের সঙ্গে ছিলেন।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!