জরুরি অবস্থা জারি করল বিক্ষোভে উত্তাল জর্জিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জর্জিয়ার গভর্নর ব্রায়ান কেম্প আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দিয়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। জানা গেছে, আটলান্টায় বিক্ষোভ আরো বেড়ে যাওয়ার জেরে তিনি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আজ শনিবার এক বিবৃতিতে ব্রায়ান কেম্প বলেন, মেয়র কেইশা বটমসের অনুরোধে এবং জননিরাপত্তা এবং জরুরি প্রস্তুতি সংক্রান্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে, আমি ফুলটন কাউন্টির জন্য জরুরি অবস্থা জারি করছি। আটনাল্টায় জনগণের সুরক্ষা ও তাদের মালামালের সম্পদ রক্ষার জন্য পাঁচশ সেনা মোতায়েন করার নির্দেশ দিচ্ছি।

এর আগে গত সোমবার কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড (৪৬) মার্কিন শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে নির্মমভাবে খুন হন। সেই ঘটনার জেরে পুরো যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ হচ্ছে। এরই মধ্যে হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে মুখ খুলেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

বারাক ওবামা বলেছেন, নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ মানুষ জর্জ ফ্লয়েড পুলিশের হাতে নির্মমভাবে খুন হওয়ার বিষয়টি ২০২০ সালের যুক্তরাষ্ট্রে স্বাভাবিক হওয়া উচিত নয়।

তিনি আরো বলেন, এটা স্বাভাবিক বিষয় হতে পারে না। আমরা যদি চাই যে- আমাদের সন্তানরা এমন একটি জাতির মধ্যে বেড়ে উঠুক, যেখানে সর্বোচ্চ আদর্শ টিকে আছে। তাহলে আমাদের আরো ভাল হতে হবে এবং অবশ্যই সেটা আমরা করতে পারি।

কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড খুন হওয়ার ঘটনায় নিজের খারাপ লাগার কথা প্রকাশ করেছেন সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা।

জানা গেছে, জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভের সময় মিনেসোটা, নিউইয়র্ক এবং আটলান্টায় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয়েছে।

লস অ্যাঞ্জেলস থেকে শুরু করে নিউইয়র্কেও শুরুর দিকে বিক্ষোভকারীরা শান্তিপূর্ণভাবে নিজেদের দাবি তুলে ধরেছেন। তবে সিএনএন-এর প্রধান কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, পুলিশ এভাবে কারো সঙ্গে নির্মম আচরণ করতে পারে না। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত সকল কৃষ্ণাঙ্গের ওপর এ ধরনের নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে।

সূত্র : এনবিসি নিউজ, আরটি

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!