চরফ্যাসনে করোনায় এক জনের মৃত্যু, আক্রান্ত আরো ৭

বাবলু ইসলাম অর্ণব, বিশেষ প্রতিনিধি

ভোলার চরফ্যাসনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আমির হোসেন (৫০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার তার নমুনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এছাড়া চরফ্যাসন হাসপাতালের দুই চিকিৎসক, ভোলা জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্মী ও একজন এডভোকেটসহ নতুন আরো ৭ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৬১ জনে।

সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গত সোমবার (১ জুন) চরফ্যাসন উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ওই বাসিন্দা করোনা উপসর্গ নিয়ে বরিশালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পরে তার নমুনা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য বিভাগ। আজ শুক্রবার সকালে তার নমুনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এছাড়া সদর উপজেলার গাজিপুর রোড, চরনোয়াবাদ, ওয়েষ্টার্নপাড়ার ৩ জন ও চরফ্যাসন হাসপাতালের দুই চিকিৎসকসহ উপজেলার নীল কমল এবং আবদুল্লাপুর ইউনিয়নের আরো ৪ জনের শরীরে নতুন করে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এসময় তিনি আরো জানান, নতুন করোনা আক্রান্ত সকলে আইসোলেশনে রয়েছে। পাশাপাশি তাদের বাড়িগুলো লকডাউন করা হয়েছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, ভোলায় এ পর্যন্ত ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। বর্তমানে আক্রান্ত আছেন ৫০ জন। সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত ২৯ জনের মধ্যে সুস্থ ৩ জন। দৌলতখানে আক্রান্ত ৩ জনের মধ্যে সুস্থ ১জন। বোরহানউদ্দিনে আক্রান্ত ৪ জনের মধ্যে সুস্থ ১ জন। লালমোহনে আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে সুস্থ ১ জন। চরফ্যাসনে আক্রান্ত ৯ জনের মধ্যে সুস্থ ১ ও মনপুরা উপজেলায় আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে সুস্থ ৪ এবং তজুমদ্দিন উপজেলায় ২ জন আক্রান্ত রয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৯ জন করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং বাকিরা নিজ নিজ বাড়িতে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে হোম আইসোলেশনে আছেন।

সূত্র আরো জানায়, এ পর্যন্ত ভোলা থেকে ২ হাজার ২৬৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকা ও বরিশাল ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। নমুনার রিপোর্ট এসেছে ১ হাজার ৫৮৫ জনের। এর মধ্যে ১ হাজার ৫২৪ জনের নমুনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও ৬১ জনের পজেটিভ আসে।

ভোলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে লালমোহন, চরফ্যাসন ও মনপুরায় ১ জন করে রয়েছে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!