পুলিশের পিটুনিতে কৃষক নিহত: মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

গোপালগঞ্জে পুলিশের পিটুনিতে কৃষক নিখিল তালুকদার (৩২) নিহত হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। একইসঙ্গে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানানো হয়েছে।

আজ রবিবার (৭ জুন) কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করে দায়ীদের শাস্তি দাবি করা হয়।

কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফারহানা সাঈদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘নিখিলের স্ত্রীর বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে রামশীল বাজারের ব্রিজের পূর্ব পাশে নিখিলসহ চারজন বসে সময় কাটাতে তাস খেলছিলেন। এ সময় কোটালীপাড়া থানার এএসআই শামীম উদ্দিন ঘটনাস্থলে জনৈক ভ্যানচালক ও অপর যুবককে নিয়ে গোপনে মুঠোফোনে তাস খেলার দৃশ্য ধারণ করছিলেন। তারা বিষয়টি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় অন্য তিনজন পালিয়ে গেলেও নিখিলকে ধরে মারপিট শুরু করেন এএসআই শামীম উদ্দিন। একপর্যায়ে হাঁটু দিয়ে নিখিলের মেরুদণ্ডে আঘাত করলে তাঁর মেরুদণ্ড ভেঙে যায়। নিখিলকে প্রথমে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বুধবার বিকেলে মারা যান তিনি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, কমিশন মনে করে ওই ঘটনায় মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন হয়েছে। পুলিশ বাহিনীর একজন সদস্যের এ ধরনের অপেশাদারি আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। প্রতিবেদনে জানা যায়, ঘটনাটি তদন্ত শুরু করা হয়েছে। বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এ বিষয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন চেয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

Facebook Comments
আরো পড়ুন
error: Content is protected !!